প্রতিষ্ঠা, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে সোনার বাংলা গড়ার অন্যতম শক্তি আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম; যারা আজকের শিশু-কিশোর বয়সী। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক সমাজ বিনির্মাণ এবং গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন রূপরেখায় শিশুদের অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে আজকের শিশু- কিশোরদের জন্য প্রয়োজন দেশপ্রেম, মূল্যবোধ, নৈতিকতা, সততা, নিষ্ঠা, তথ্যপ্রযুক্তি, বিজ্ঞান, খেলাধুলা এবং সাহিত্য-সংস্কৃতি সম্পর্কিত পরিপূর্ণ জ্ঞান। শিশুদের মেধা মনন ও বুদ্ধিবৃত্তি চর্চার উদ্দেশ্যে শিল্প-সাহিত্য- সংগীত-চারুকলা-বিজ্ঞানসহ সংস্কৃতির নানা শাখায় বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর রয়েছে বহুবিধ কার্যক্রম।

শিশুদের সাংস্কৃতিক-মানসিক ও সৃজনশীল বিকাশে একমাত্র জাতীয় প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ শিশু একাডেমী। উল্লেখযোগ্য কার্যক্রমÑ সাংস্কৃতিক প্রশিক্ষণ, জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা, জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন, বিশ^ শিশু দিবস ও শিশু অধিকার সপ্তাহ উদযাপন, শিশু একাডেমী বইমেলা, শিক্ষা সফর, শিশু বিকাশ ও প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা কেন্দ্র, শিশু স্বাস্থ্য ও পুষ্টি, কন্যা শিশুদের জন্য কর্মসূচি, বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি, সাংস্কৃতিক বিনিময়, আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক উৎসবে যোগদান, শিশুতোষ গ্রন্থ এবং নিয়মিত শিশু পত্রিকা প্রকাশ।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শিশু একাডেমী বর্তমানে কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ দেশের ৬৪টি জেলা ও ৬টি উপজেলায় কাজ করছে। ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষ থেকে উত্তরা হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং সাভার অধর চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ে চালু হয়েছে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র।

 

 

বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য:

  • জাতীয় জীবনের সকল ক্ষেত্রে শিশুদের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করা
  • শিশুদের জন্য কারিগরী ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা
  • অর্থনৈতিক স্বাবলম্বিতা অর্জনে শিশুদের সহায়তা করা
  • শিশুদের আইনগত অধিকার রক্ষার্থে সাহায্য করা
  • শিশুদের কল্যাণে নিয়োজিত সরকারী ও বেসরকারী, দেশী বিদেশী প্রতিষ্ঠানের সহিত যোগাযোগ স্থাপন করা ও সহযোগিতা করা
  • জাতীয় উন্নয়ন কর্মকান্ডে শিশুদেরকে সম্পৃক্ত করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা
  • সমবায় সমিতি গঠন ও কুটির শিল্প স্থাপনে শিশুদেরকে উৎসাহিত করা
  • ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে শিশুদের অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করা
  • শিশুদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সম্মেলন, সেমিনার ও কর্মশালার ব্যবস্থা করা
  • উপরোক্ত কার্যাবলী সম্পাদনের জন্য প্রয়োজনীয় অন্য যে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা

বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে তথ্য অধিকার আইন ২০০৯-এর ৪, ৬, ৭, ৮ ও ৯ নং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী তথ্যের অবাধ প্রবাহ এবং জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিতকরণের নিমিত্ত তথ্যাদি স্ব-উদ্যোগে প্রকাশ করবে।